বিদায় হজ্জের ভাষণ

0
658

বিদায় হজ্জের ভাষণ

সময় তাঁর চারদিকে এক লাখ চল্টিশ হাজার মতান্তরে এক লাখ চুয়াল্লিশ হাজার মানুষের সমুদন্দ বিদ্যমান ছিলো। তিনি সমবেত জনসমুদেন্দর উদ্যেশ্যে এক ঐতিহাসিক ভাষণ দেন। সে ভাষণে তিনি বলেন,  ‘‘হে লোকসকল, আমার কথা শোনো, আমি জানি না, এবারের পর তোমাদের সাথে এ জায়গায় আর মিলিত হতে পারবো কি না।
তোমাদের রক্ত এবং ধন-সম্পদ পরস্পরের জন্যে আজকের দিন, বর্তমান মাস এবং বর্তমান শহরের মতোই নিষিদ্ধ। শোনো, জাহেলিয়াত যুগের সবকিছু আমার পদতলে পিষ্ট করা হয়েছে। জাহেলিয়াতের খুনও খতম করে দেয়া হয়েছে। আমাদের মধ্যেকার প্রথম যে রক্ত আমি শেষ করছি তা হচ্ছে রবিয়া ইবনে হারেসের পুত্রের রক্ত। এ শিশু বনী স্দা গোত্রে দুধ পান করছিলো। সে সময় হোযায়ল গোত্রের লোকেরা তাকে হত্যা করে। জাহেলী যুগের সুদ খতম করে দেয়া হয়েছে। আমাদের মধ্যেকার প্রথম যে সুদ আমি খতম করছি তা হচ্ছে আব্বাস ইবনে আবদুল মোত্তালেবের সুদ। এখন থেকে সকল প্রকার সুদ শেষ করে দেয়া হলো।
হাঁ, নারীদের ব্যাপারে আল্লাহকে ভয় করো, কেননা তোমরা তাদের আল্লাহর আমানতের সাথে গ্রহণ করেছো এবং আল্লাহর কালেমার মাধ্যমে তাদের হালাল করেছো। তাদের ওপর তোমাদের অধিকার, তারা তোমাদের বিছানায় এমন কাউকে আসতে দেবে না যাদের তোমরা পছন্দ করো না। যদি তারা এরুপ করে তবে তোমরা তাদের প্রহার করতে পারো, কিন্তু বেশী কঠোর প্রহার করো না। তোমাদের ওপর তাদের অধিকার হচ্ছে, তোমরা তাদের ভালোভাবে পানাহার করাবে এবং পোশাক দেবে।
তোমাদের কাছে আমি এমন জিনিস রেখে যাচ্ছি, যদি তোমরা তা দৃঢ়ভাবে ধারণ করে থাকো তবে কখনো পথভ্রষ্ট হবে না। তা হচ্চে আল্লাহর র্তিাব।
হে লোকসকল, মনে রেখো, আমার পরে কোনো নবী নেই। তোমাদের পরে কোনো উম্মত নেই। কাজেই নিজ প্রতিপালকের এবাদাত করবে, পাঁচ ওয়াক্ত নামায আদায় করবে, রমযান মাসে রোযা রাখবে, সানন্দ চিত্তে নিজের ধন-সম্পদের যাকাত দেবে, নিজ পরওয়ারদেগারের ঘরে হজ্জ করবে, নিজের শাসকদের আনুগত্য করবে। যদি এরুপ করো তবে তোমাদের পরওয়ারদেগারের জান্নাতে প্রবেশ করবে।
তোমাদের আমার সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হবে। তোমরা তখন কি বলবে? সাহাবীরা বললেন, আমরা সাক্ষ্য দিচ্ছি, আপনি তাবলীগ করেছেন, পয়গাম পৌঁছে দিয়েছেন, কল্যাণকামনার হক পুরোপুরি আদায় করেছেন।
এ কথা শুনে নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়া সাল্লাম শাহাদাত আঙ্গুল আকাশের দিকে তুলে এরপর লোকদের দিকে ঝুঁকে তিন বার বললেন, ইয়া রাব্বাল আলামীন, তুমি সাক্ষী থেকো।
নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়া সাল্লামের বাণীসমূহ রবিয়া ইবনে উমাইয়া ইবনে খালাফ উচ্চকণ্ঠে মানুষের কাছে পৌঁছে দিচ্চিলেন।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY