আল আকসা মসজিদে ইসরাইলের বার বার হামলা, নিন্দা অব্যাহত

0
208

Jumabar: International Desk:  ইহুদিবাদী ইসরাইলি বাহিনীর সহযোগিতায় অবৈধ বসতি স্থাপনকারীরা আবারো পূর্ব আল-কুদস এলাকায় অবস্থিত আল-আকসা মসজিদে হামলা চালিয়েছে। 15 সেপ্টেম্বর এই হামলায় অংশ নিয়েছে ইসরাইলী সেনারাও। এ হামলায় শতাধিক ফিলিস্তিনি আক্রমনের শিকার হয়েছেন।

গতকাল মঙ্গলবার 15 সেপ্টেম্বর, ইসরাইলি সেনারা আল-আকসা মসজিদের মুসল্লিদের ওপর স্টান গ্রেনেড এবং টিয়ার শেল নিক্ষেপ করলে অন্তত ২০ জন ফিলিস্তিনি আহত হয়। পাশাপাশি বহু ফিলিস্তিনিকে ইসরাইলি সেনারা আটক করে নিয়ে যায়। অন্যদিকে, আল-কুদস এলাকায় ইসরাইলি সেনারা আল-কিবলা মসজিদে হামলা চালিয়ে এর দরজায় আগুন লাগিয়ে দেয় এবং এর জানালা ভেঙে ফেলে। এর আগে, গত সোমবার 7 সেপ্টেম্বর ইহুদিবাদী ইসরাইলের ২০০ জনেরও বেশি সেনা  আল-আকসা মসজিদে ঢুকে ফিলিস্তিনি মুসল্লিদের ওপর হামলা চালায়।

উগ্র ইহুদি এবং ইসরাইলি বাহিনী আল-আকসা মসজিদে ঢুকে মুসল্লিদের ওপর চতুর্থবারের মতো হামলা চালালে ওই মসজিদের আশপাশে ইসরাইলি এবং ফিলিস্তিনিদের মধ্যে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে বলে  বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে। ইহুদিবাদীদের ‘রোশ হাসানাহ নতুন বৎসরের ছুটি’ উপলক্ষে  আল-কুদস এলাকায় তেল আবিব সেনা মোতায়েন করার পর থেকে আল-আকসা মসজিদের আশপাশে  ফিলিস্তিনিদের ওপর হামলার মাত্রা বেড়ে গেছে।

আল-আকসা মসজিদের আশপাশে সহিংসতা এবং সংঘর্ষ অব্যাহত থাকায় কথিত ‘মধ্যপ্রাচ্য শান্তি প্রক্রিয়া’ বিষয়ক জাতিসংঘের বিশেষ প্রতিনিধি মালাদেনভ গতকাল (মঙ্গলবার) গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। এ ধরনের হামলায় মুসলিম বিশ্বে প্রতিবাদ অব্যাহত থাকলেও। বিশ্বনেতাও পশ্চিমা বিশ্বে রহস্যজনক নিরবতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

মুসলমানদের প্রথম কেবলা আল আকসা মসজিদে মুসল্লিদের ওপর ইসরাইলি বাহিনীর হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরান। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রমিন মেহমানপারাস্ত এক বিবৃতিতে এ ধরনের বর্বর হামলার বিষয়ে কঠোর প্রতিক্রিয়া দেখাতে সব আঞ্চলিক ও  আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান বিশেষকরে মানবাধিকার সংস্থাগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

আল আকসা মসজিদে হামলার মাধ্যমে ইসলাম অবমাননা করা হয়েছে বলে তিনি জানান। মেহমানপারাস্ত আরো বলেন, এ ধরনের ততপরতার বিষয়ে আন্তর্জাতিক সমাজ জোরালো কোনো প্রতিক্রিয়া না দেখালে ইহুদিবাদী ইসরাইল এ ধরনের পাশবিকতা অব্যাহত রাখতে উৎসাহিত হবে।

এদিকে খোলেদ মেশাল ও তুকী প্রধানমন্ত্রী সমস্যা সমাধানে আলোচনায় বসেছেন। কায়রো অনুষ্ঠিত বৈঠকে এই হামলার নিন্দা করেছেন আরবলীগ। হামলার নিন্দা জানিয়ে মানব বন্ধন করেছে ফিলিস্তিনি জনগন। আর ফিলিস্তিনিদের শাস্তিদেয়ার প্রতিজ্ঞা ব্যক্ত করেছেন। ইসরাইলী প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু।

দখলদার ইসরাইলি বাহিনী গতকা মুসলমানদের প্রথম কেবলা আল-আকসা মসজিদে মুসল্লিদের ওপর বর্বর হামলা চালিয়েছে। পূর্ব বায়তুল মুকাদ্দাস বা জেরুজালেমে অবস্থিত এ মসজিদটি দীর্ঘ দিন ধরে দখল করে রেখেছে ইসরাইল।

সূত্র: রেডিও তেহরান

NO COMMENTS