জনপ্রিয় ১০ টি প্রকাশনা

0
257

আল কোরআন একাডেমী পাবলিকেশন্স এর জনপ্রিয় ১০ টি বইয়ের আলোচনা
১. আমার শখের কোরআন মাজীদ
হাজার বছরের কোরআন মুদ্রণের ইতিহাসে এই প্রথম বিষয়ভিত্তিক রঙীন কোরআন এক বিস্ময়কর প্রকাশনা ‘আমার শখের কোরাআন মাজীদ’। ইতিমধ্যেই এই গ্রন্থটি দেশের সুধী ও শিক্ষিত সমাজে ব্যাপক আলোড়ন ও উৎসাহের সৃষ্টি করেছে। বিশ্বে বিভিন্ন ধারার কালার কোডেড কোরআন মাজীদ থাকলেও সাবজেক্ট ওয়াইজ কালার কোডেড এটাই প্রথম । এতে রয়েছে ভিন্ন ভিন্ন কালারে আয়াত ও অনুবাদের আইডেন্টিফিকেশন। যেমন গোলাপী কালিতে চিহ্নিত আছে আল্লাহর নামগুলো। সবুজ কালিতে আল্লাহর সমস্ত হালাল নির্দেশিকা ও বিভিন্ন কাজের আদেশ। আর লাল কালিতে রয়েছে সমস্ত হারাম নির্দেশিকা ও নিষেধ। যেহেতু কোরআনের হালাল হারাম আয়াতগুলো আমাদের জন্য বেশী গুরুত্বপূর্ণ। এতে রয়েছে আল কোরআন একাডেমী লন্ডনের ডাইরেক্টর জেনারেল হাফেজ মুনির উদ্দীন আহমদ-এর বহুল প্রশংসিত ‘কোরআন শরীফ ঃ সহজ সরল বাংলা অনুবাদ’। সেজন্য কোরআন পাঠ করার সময় একজন সচেতন পাঠক ইচ্ছে করলে লাল সবুজ মার্ক দেখে কোরানের আদেশ নিষেধ সম্পর্কে সচেতন হতে পারে। এটি বাংলা ভাষায় প্রথম কোরআন প্রকাশনা যার প্রতিটি পৃষ্ঠা ৪ কালারে ছাপা। গ্লসি আর্ট পেপার। সত্যিই সংগ্রহ এবং উপহার দেয়ার জন্য এর কোন তুলনা হয়না।

২. তাজওয়ীদসহ হাফেজী কোরআন
আল কোরআন একাডেমী পাবলিকেশন্স এর সর্বশেষ প্রকাশনা। গত রমযান মাসে এটি বাজারে আসার পরেই কোরআন প্রেমী আল্লাহর বান্দা ও হাফেজে কোরআনদের মাঝে ব্যোপক সাড়া ফেলে। এই কোরআনে তাজওয়ীদের আলাদা আলাদা বৈশিষ্ট্যের উপর ভিত্তি করে ভিন্নি ভিন্ন রং দিয়ে চিহ্নিত করা হয়েছে। যাতে করে পাঠ করার সময় তাজওয়াদ গুন্নাহ অনুযায়ী সঠিকভাবে পড়া যায়। পতিটি পৃষ্টায় রঙিন ছাপা, গ্লসি আর্ট পেপার,  রেক্সিনের শক্ত বাঁধাই। হাফেজদের সংগ্রহ রাখা ও হাফেজী মাদ্রাসার উপহার দেয়ার জন্য অনেকেই এই সুদৃশ্য ও মানসম্পন্ন প্রকাশণাকে বেশ পছন্দ করছেন। বিশেষ করে হাফেজে কোরআনদের জন্য এ ধরনের প্রকাশনা ইতোপূর্বে বাংলা ভাষায় কেউ নিবেদন করেনি। মান ও পরিবেশনার তুলনায় এর দামও বেশী নয়।

৩. কোরআন শরীফ সহজ সরল বাংলা অনুবাদ
এই কোরআনটির ভাষা সহজ সরল। এটাকে বলা হয় বাংলা ভাষায় প্রকাশিত সবচে সহজ সরল কোরআনের অনুবাদ। এতে ভাষা সহজ, শব্দগুলো প্রচলিত ও পরিচিত। বাক্যগঠন সরল। এবং ব্রাকেটে দেয়া রয়েছে ভাষাগত মিসিংলিংকগুলো। ফলে যেকোন সাধারণ লোকের পক্ষে এর বিষয় বক্তব্য বোঝা সহজ হয়। এতে রয়েছে একটি সাবজেক্ট ওয়াইজ সূচী। আপনি নামায সম্পর্কে কোথায় আয়াত আছে জানতে চান এই সূচী দেখে নিন। যাকাত হজ্জ, নারী, বিয়ে, তালাক সব বিষয়সূচী দেয়া আছে। যাতে যার যখন যে বিষয়ে প্রয়োজন তিনি তাতক্ষনিক ভাবে সূচী দেখে বিষয় খূজে নিতে পারেন।  বাজারে বিদ্যমান অন্যান্য অনুবাদ গ্রন্থে পবিত্র কুরআনের অনুবাদ সহজ করার বদলে যেখানে আরো কঠিন ও দুর্বোধ্য করে ফেলছে, সেখানে এই অনুবাদ গ্রন্থটি একটি ব্যতিক্রমী প্রয়াস হিসেবে বিবেচনা করা যেতে পারে। এর অন্যন্য বৈশিষ্ঠ হলো এর শেষের দিকে কোরআন সম্পর্কে ৫০ পৃষ্ঠায় কয়েকটি আর্টিকেল রয়েছে। কোকোন মোমেনের ঈমান জাগানোর জন্য আর কোরআন সম্পর্কে জানার জন্য এমনকিছু তথ্যউপাত্ত এই বইতে রয়েছেে যে অনেকেই এগুলো পাঠে বিমোহিত হন। এই প্রকাশনাটি অন্তত ১০ রকমের সাইজে পাওয়া যাচ্ছে।

৪. তাফসীর ফি যিলালিল কোরআন
কোরআনে প্রতিটি নির্দেশ এর পেছনে এবং প্রতিটি সূরা নাযিল হওয়ার পেছনে রয়েছে একটি ইতিহাস বা শানে নজুল রয়েছে কার্যকারণ ও তার ব্যাখ্যা। এসব জানার জন্যে তাফসীর পাঠ করা উচিত। ফি যিলাযিল কোরআন মিশরের কালজয়ী কোরআন প্রতিভা সাইয়েদ কুতুব শহীদের অমর সৃষ্টি। এটি বিশ্বের সর্বাধিক ভাষায় অনুদিত এবং সবাধিক পঠিত তাফসীর। সাইয়েদ কুতুব এক বিষ্ময় প্রতিভা। ২২ খন্ডে ৮০০০ পৃষ্ঠায় এই তাফসীরে সম্পাদনা করেছেন হাফেজ মুনির উদ্দীন আহমদ।একটি যোগ্য ও দক্ষ টিম কয়েক বছরের প্রচেষ্ঠার এটি অনুবাদ করতে সক্ষম হয়েছে। এই তাফসীরে হাফেজ মুনির উদ্দীন আহমদ এর বহুল প্রচারিত ও জনপ্রিয় কোরআনের অনুবাাদ ব্যবহার করা হয়েছে।

৫. আর রাহীকুল মাখতুম
আল্লামা সফিউর রহমান মুবারকপুরি কর্তৃক রচিত। রাবেতা আলম আল ইসলামীর পক্ষ থেকে ১৩৯৬ হিজরী সনে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের জীবন-চরিত বিষয়ক গ্রন্থ রচনা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। তিনি সারা বিশ্ব থেকে প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহণকারী ১১৮২জন প্রতিযোগীর মধ্যে প্রথম পুরস্কার লাভের এক দুর্লভ গৌরব অর্জন করেন। এ গ্রন্থটি সর্বস্তরের মানুষের নিকট অত্যন্ত সমাদৃত হয়েছে। সকলেই অত্যন্ত প্রশংসা করেছেন গ্রন্থটির। সবচেয়ে নির্ভর যোগ্য তথ্য সম্মিলিত নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের জীবনী গ্রন্থ হিসেবে ‘আর রাহীকুল মাখতূম’ বিশ্বের বিখ্যাত উলামা ও গবেষকগণের যথেষ্ট প্রশংসা কুড়িয়েছে। যার পরিপ্রেক্ষিতে এ বইটি আমাদের প্রিয় মাতৃভাষা সহ পৃথিবীর অগণিত জীবন্ত ভাষায় অনুদিত হয়েছে। অনুবাদ করেছেন প্রবাসী লেখিকা ও অনুবাদক খাদিজা আখতার রেজায়ী।
৬. তাফসীরে ইবনে কাছীর
কোরআনের পূর্ণাঙ্গ তাফসীর- ৭ খন্ডে সমাপ্ত। মূল: আল্লামা ইমাদুদ্দিন ইবনে কাছির । অনুবাদ: আল কোরআন একাডেমী পাবলিকেশন্স এর সম্পাদনা পরিষদ। অনুবাদ সম্পাদনা: হাফেজ মুনির উদ্দীন আহমদ । তুলনামূলক উন্নত কাগজ, মজবুত বাঁধাই এবং ঝকঝকে ছাপা সাথে রয়েছে কোরআনের সহজ সরল বাংলা অনুবাদ। বাজারে আরো একাধিক প্রতিষ্ঠান তাফসীর ইবনে কাছির বের করলেও আল কোরআন একাডেমী এটা প্রকাশ করেছে। কারণ একাডেমী উর্দূ কিংবা ফার্সী থেকে নয়, মুল আরবি থেকে প্রকাশ করেছে আর এটি একাডেমীর একটি ব্যয়বহুল প্রকল্প। এর শুদ্ধতা এবং ভুল ত্রটি মুক্ততার জন্য একাডেমী কয়েক লক্ষ টাকা এতে ব্যয় করেছে। ব্যাপক সময় নিয়ে করার কারণে এর অনুবাদ বেশ মার্জিত ও সহজ সরল হয়েছে। তাফসীরে ইবনে কাছীর কে বলা হয় সহস্রাব্দের সেরা তাফসীর। সহ¯্রাব্দের সেরা মোফাস্সের আল্লামা ইমাদুদ্দিন ইবনে কাছির রচিত এক সহস্রাব্দ সেরা তাফসীর কারণ বিগত ৭ শত বছরে এই তাফসীরটির জনপ্রিয়তা এবং প্রয়োজনীয়তা কোনোটাই কোনো অংশ কমেনি। এই তাফসীরের বৈশিষ্ঠ্য হলো এতে হাদীসের প্রচুর রেফারেন্স ব্যবহার করা হয়েছে। ব্যবহার করা হয়েছে ইতিহাসের ও বিভিন্ন কিতাবের নানা রেফারেন্স। ফলে এটি অবয়বের দিক থেকে একটু বড়ো হলেও কাজ হিসেবে বেশ সমৃদ্ধ হয়েছে।
৭. মুক্তো দিয়ে গেখেছি মালা
বিচারপতি তকী ওসমানীর লেখা বিশ্ববিখ্যাত এই বইটি প্রকাশ করেছে আল কোরআন একাডেমী পাবলিকেশন্স। ইসলামের ইতিহাস থেকে মুক্তোদানার মতো টুকরো টুকরো ঘটনা বাছাই করে তিনি লিপিবদ্ধ করেছেন। প্রতিটি ঘটনার সূত্র বা রেফান্সে উল্লেখ করতে ভোলেন নি। ছোট একটি বইযে কতো বিশাল তথ্যভার্ডার হতে পারে এই বই তার প্রমান। বইয়ের প্রতি পাতায় পাতায় রয়েছে পাঠকের জন্য চমক। এমন অনেক কিছুই এই বই পড়ে জারবেন যা আগে জানতেন না। ইসলামের এক অফুরন্ত ভান্ডার আবিষ্কার হবে এই বইয়ের পাঠকের কাছে। হাজারে গ্রন্থ অধ্যয়ন কেরে যেসব গ্রন্থ থেকে সবেচে আবষশীনীয় অংশগুলোই এতে তুলে দিয়েছেন। ছোট বই কিন্তু মনে হবে জ্ঞানের অফূরন্ত ভান্ডার। এটি আল কোরআন একাডেমী পাবলিকেশন্স এর ইতিহাসঐগিত্য সিরিজের ৪টি বইয়ের একটি।

৮. কোরআনের অভিধান
কোরআনের অভিধান এটা তৎকালীন আল কোরআন একাডেমী লন্ডন বর্তমান আল কোরআন একাডেমী পাবলিকেশন্স এর প্রথম নিবেদন। শুধুমাত্র কোরআনের ব্যবহুত শব্দসমূহের অর্থ অভিধান হিসেবে সাজিয়ে দেয়া হয়েছে। সেই হিসেবে এটি বাংলা ভাষার প্রথম কোরআনিক অভিধান। যারা কোরআন বুঝতে ও শিখতে চান তাদের জন্য এই অভিধান বেশ কাজের বলে মনে করা হয়। এই অভিধানে শুধু কোরআনের শব্দগুলো বাছাইকরা হয়েছে বিধায় কোরআনের ছাত্রদের জন্য এটি বেশ উপকারী। অল্প পরিসরে কোরআনের শব্দগুলোর বিভিন্নরুপসহ আরবি মূল সাথে উচ্চারণ ও একাধিক বাংলা অংথ দেয়ায় বইটি একটি উপকারী গ্রন্থ হিসেবে গত ২ যুগেরও বেশী বাংলাদেশ ও ভারতে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে।
৯. খোতবাতে মোহাম্মদী:
প্রিয়নবী (স) এর ১৩শ ভাষণ ও খোতবার সম্বন্বয় এটি এক ঐতিহাসিক প্রামান্য দলিল। মাওলানা মোহাম্মদ জুনাগড়ি সংকলিত এই বিশাল সংগ্রহ বাংলায় প্রকাশ করেছে আল কোরআন একাডমী পাবলিকেশন্স। এটি সর্ব ধরনের মানুষের জন্য পাঠ্য বই। প্রিয়নবী (স)
এর এসব খোতবা হাদীস গ্রন্থসমূহে থাকলেও খোতবাসমূহে আলাদাভাবে প্রকাশিত হওয়ায় এগুলো এক নতুন মাত্রা পেয়েছে।

১০. কিশোরদের আদব কায়দা
শিশুকিশোরদের জন্য বাজারে হাজারো বই পাওয়া যায়। সেসব গল্প কবিতা আর ছড়ার বইয়ের ভিড়ে হারিয়ে যায় তাদের জীবনের আসল ও সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষাটি। অনুযায়ী একজন কিশোর সকাল থেকে সন্ধা। পুরিবার থেকে খেলার মাঠ। পড়ার টেবিল থেকে স্কুলের বারান্দা। সর্বত্র তাকে বিভিন্ন কর্মকান্ডের মধ্য দিয়ে যেতে হয়। এসব কাজে অনেক কিশোরই বুঝতে পারে না। তার বা তাদের কি করা উচিত। ফলে শিশু কিশোরদের কিছু ভুল ত্রুটি হয়। আর মুরুব্বিরা খুব সহজে বলে দেয় ‘‘ছেলেটি বেয়াদব’’ কিন্তু আমরা ভেবে দেখিনা এই কিশোরকে আমরা পরিবার সমাজ বা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তার জীবনের চলার পথে কি আচরণ করবে সেটা শিক্ষা দিয়েছি কিনা? যদি আমরা সেটা না করি তাহলে এ ব্যাপারে আমাদের দায়িত্ব থেকে যায়। কিশোরদের আদবকায়দা বইটিতে এ ব্যাপারে সাবলীল ভাষায় কিশোরদের বন্ধুর মতো করে এসব কথায় বুঝিয়ে বলেছেন, সদালাপী লেখক ও অনুবাদক হাফেজ মুনির উদ্দীন আহমদ।কি আচরণ করনীয়? কেন করনীয়? এর ফল কি? ভুল আচরনে কিকি সমস্যা তৈরী হতে পারে। এগুলোও এসেছে লেখকের শিশুসুভল সহজ সরল ও মমতামাখা লেখনীতে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY