আমিরাতের কোরআনের হাফেজা হলেন অশিক্ষিত বৃদ্ধা

0
346
A Muslim woman reads the Koran before Iftar, when Muslims break their fast, during the holy month of Ramadan at the historic Umayyad Mosque in Old Damascus August 26, 2009. Muslims around the world abstain from eating, drinking and conducting sexual relations from sunrise to sunset during Ramadan, the holiest month in the Islamic calendar. REUTERS/Khaled al-Hariri (SYRIA SOCIETY RELIGION) - RTR274NK

আমিরাতের রাস আল খাইমাহ’র ইজন নামক অঞ্চলের ৮২ বছরের বয়স্ক নারী ‘শেইখা জায়ন সাইয়িদ আল সুরিদী’ তার জীবনের শেষ বয়সে ১০ পারা কোরআন হেফজ করতে সক্ষম হয়েছেন। (ছবি: প্রতিকী)

তিনি অশিক্ষিত হওয়া সত্ত্বেও তার দৃঢ় ইচ্ছার কারণে পবিত্র কোরআনের ১০ পারা মুখস্থ করতে পেরেছেন।

সাইয়িদ আল সুরিদী অত্যন্ত দক্ষতাপূর্ণ ও কর্মশীল। তিনি গৃহপালিত পশু দেখাশোনা করেন এবং ভেষজ ওষুধের ক্ষেত্রে তার বিশেষ দক্ষতা রয়েছে।

উম্মে মুহাম্মাদ নামে প্রসিদ্ধ এই বৃদ্ধা ডিজিটাল ফন্ট কোরআনের (বিশেষ ধরণের স্পিকার বিশিষ্ট কলম এবং এই কলম দ্বারা নির্ধারিত কুরআনের যে স্থানে স্পর্শ করা হবে, ঠিক সেখানেই তেলাওয়াত করবে) মাধ্যমে অতি সহজেই কোরআন হেফজ করতে সক্ষম হয়েছেন।

তিনি বলেছেন: আমি লিখতে পড়তে জানিনা। তবে এই ডিজিটাল ফন্ট কোরআনের মাধ্যমে আমি সহজে ও দ্রুত কুরআন হেফজ করতে সক্ষম হয়েছি। কারণ এই কলম পবিত্র কোরআনের যে স্থানেই স্পর্শ করা হোক না কেন, সেখানেই তেলাওয়াত করবে এবং নিজের ইচ্ছা মত তেলাওয়াত পুনরাবৃত্তি করা যায়।

পবিত্র কোরআনের অন্যান্য পারা মুখস্থ করার জন্য উম্মে মুহাম্মাদ ইজন নামক অঞ্চলের কোরআন স্টাডি সেন্টারে নিজের নাম নিবন্ধন করেছেন। এছাড়াও তিনি আমিরাতে অনুষ্ঠিত কোরআন হেফজ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করার জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ করছেন।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY