আল কোরআন একাডেমী লন্ডন: ইংরেজী অনুবাদ প্রকাশ

0
54

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম
মাত্র কয়দিন আগে আল কোরআন একাডেমী লন্ডন তার বহুল প্রত্যাশিত ইংরেজী অনুবাদসহ কোরআন মাজীদ প্রকাশ করেছে। একই সাথে একাডেমী পশ্চিমী দুনিয়ার বিপুল সংখ্যক অমুসলিম জনগোষ্ঠীর জন্যে কোরআনুল কারীমের শুধু ইংরেজী অনুবাদের একটি সুন্দর সংস্করণ প্রকাশ করেছে। আল কোরআন একাডেমী লন্ডনের কোরআনের এই সাম্প্রতিক অনুবাদের সময় ইউরোপ আমেরিকায় অনেকগুলো ইংরেজী অনুবাদ বাজারে ছিলো। সেই যে ১৬ শ’ শতকের শেষের দিকে কোরআনুল কারীমের ইংরেজী অনুবাদের ধারা শুরু হলো- গত ৩ শ’ বছরে তার কাজ একদিনের জন্যেও বন্ধ হয়ে থাকেনি। ইউরোপের বিভিন্ন অঞ্চলের পাশাপাশি বিগত শতকের শেষের দিক থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকেও কোরআনের কিছু সুন্দর সুন্দর অনুবাদ বেরিয়েছে। আগের তুলনায় এ অনুবাদগুলোর ভাষা অনেকটা সহজ সাবলিল- কিছুটা বাংলা কথ্য ভাষার মতো।
সময়ের সাথে সাথে পৃথিবীর সব ভাষায় যে বিবর্তন এসেছে তার থেকে ইংরেজী ভাষাও মুক্ত নয়। সেক্সপিয়ার ও জেফরি সসারের সময়ের ইংরেজীর অনেক শব্দ ও বাক্য এখন বিলুপ্ত প্রায়। এমনকি ইংরেজী সাহিত্যের এক বড়ো দিকপাল- চার্লস ডিকেন্সের সমসাময়িক ইংরেজী সাহিত্যেও ব্যাপক পরিবর্তন এসেছে। এসব ঐতিহাসিক ঘটনাগুলোকে সামনে রেখে এখন পশ্চিমী দুনিয়ায় ইংরেজী ভাষাকে সহজীকরণের একটি বড়ো আন্দোলন শুরু হয়েছে। আর এ সহজীকরণের অব্যাহত ধারার একটি বড়ো মাইলফলক হচ্ছে আল কোরআন একাডেমী লন্ডনের সাম্প্রতিক দু’টো অনুবাদগ্রন্থ। এই অনুবাদ গ্রন্থে সম্মানিত অনুবাদক কোরআনের ম্যাসেজকে জনগণের কাছে সহজবোধ্য করার যে অকান্ত প্রচেষ্টা করেছেন- আল্লাহ তায়ালা তা কবুল করুন।
আল্লাহ তাবারাকা ওয়া তায়ালার দয়ায় আমরা বাংলা ভাষায়ও আল্লাহর কিতাবের কথাগুলোকে কোরআন পাঠকদের সামনে সহজ করে পেশ করার চেষ্টা করেছি। সেই অনুবাদগ্রন্থটি প্রকাশনার দেড় দশকের মাথায় এসে আল্লাহর দয়া ও অনুগ্রহে আমি বলতে পারি, আল্লাহ তায়ালা আমাদের এ ুদ্র কাজটিকে কোরআন পাঠকদের মাঝে ব্যাপক গ্রহণযোগ্যতা প্রদান করেছেন। আমাদের বাংলা অনুবাদের পাশাপাশি সদ্য প্রকাশিত ইংরেজী অনুবাদ ও কোরআন পাঠকদের ভালোবাসা ও গ্রহণযোগ্যতা পাবেÑ আল্লাহর দরবারে সেটুকুই কামনা করছি।

-হাফেজ মুনির উদ্দীন আহমদ

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY