হ্যা আমরা মানুষ- আমাদের নারীরাও মানুষ, তারা বাজারের সস্তা পণ্য নয়।

0
122

জুমাবার সম্পাদকীয়

বিসমিল্লাহির রহমানির রাহীম
ইউরোপে শিল্প বিপ্লবের বয়েস বেশী দিন হয়নি, মাত্র কয়েক শ’ বছর আগেও মানুষরা অধিকাংশ কাজ নিজেদের হাত দিয়ে করতো। বিদ্যুৎ গ্যাস ও নানা যন্ত্রপাতি আবিস্কারের পর মানুষের কাজ কর্ম ও জীবন যাত্রায় আমূল পরিবর্তনের সূচনা হলেও এর নির্মম শিকার হয়েছে গোটা মানব জাতির অর্ধেকের বেশী সংখ্যক মানুষ- চির অবহেলিত আমাদের নারী সমাজ। এ বিষয়টি এতো ব্যাপক ও এতো জটিল যে, দু’ দশ লাইন লিখে আমরা এসব বিস্তারিত ব্যাখ্যা করতে পারবো না।
নারীরা কিভাবে শিল্প বিপ্লবের প্রথম শিকার হলো তা বুঝার জন্যে শিল্প বিপ্লবের আগে পরের ইউরোপের রাজনৈতিক অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক পটভূমিকা পর্যালোচনা করতে হবে। ঘরের ভেতরের অংশ নারীর আর বাইরের অংশ নরের- যুগ যুগান্তর ধরে চলে আসা এ প্রাকৃতিক নিয়ম নীতির ওপর প্রথম ঝাকুনি দিলো শিল্প বিপ্লব। এই বিপ্লবের ফলে রাতারাতি যখন কোটী কোটী লোক বেকার হয়ে গেলো তখন দেখা গেলো একজন পুরুষের আয় দিয়ে আর সংসার চলে না- তখন অবলা নারীকেও তার সন্তানের ক্ষুধার্ত মুখে এক টুকরো রুটি তুলে দেয়ার জন্যে ঘরের বাইরে বের হতে হলো। ঘরের বাইরে পা দিয়েই নারী দেখলো চারদিকে যারা তার দিকে লোলুপ দৃষ্টিতে হা করে তাকিয়ে আছে, তাদের হাতে নারীদের ইজ্জত আবরু ও সম্মান কোনোটাই নিরাপদ নয়। ক্ষুধার্ত নারী সামান্য এক টুকরো রুটি তো পেলো, কিন্তু তার জন্যে যে মূল্য তাকে শোধ করতে হয়েছে তার মুখে বাঁধ দেয়ার জন্যে জন্ম নিয়ন্ত্রণের কতিপয় বড়িই যথেষ্ট ছিলো না- এর জন্যে যে নৈতিক বিধি বন্ধন দরকার ছিলো দুর্ভাগ্যক্রমে ইউরোপিয়ানদের হাতে তখন এর কোনো প্রেসক্রিপশনই মজুদ ছিলো না। এ সর্বগ্রাসী যৌনতার বন্যায় মানব জাতির হাজার বছরের সভ্যতা ও সাংস্কৃতিক উত্তরাধিকারগুলো যেভাবে হারিয়ে গেলো, তাকে আর উদ্ধার করা যায়নি। জানি না ভবিষ্যতে এমন দিন আর কবে আসবে? যখন আবার মানব জাতি শান্তি সমৃদ্ধি আল্লাহ তায়ালার দেখানো পথে চলতে পারবে- দুনিয়ার মানুষগুলো আবার মাথা উঁচু করে বলতে পারবে, হ্যা আমরা মানুষ- আমাদের নারীরাও মানুষ, তারা বাজারের সস্তা পণ্য নয়।

-হাফেজ মুনির উদ্দীন আহমদ

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY